Darul Ifta, Rahmania Madrasah Sirajganj

ভাষা নির্বাচন করুন বাংলা বাংলা English English
ফাতাওয়া খুঁজুন

মিম, জিম, হামিম, ইয়াছিন, আলিফ, ত্বহা, এই ধরণের নাম রাখা জায়েয!

ফতওয়া কোডঃ 130-প-04-06-1443

প্রশ্নঃ

অনেকে আরবি হরফ দিয়ে নাম রাখে যেমনঃ মিম, জিম, হামিম, ইয়াছিন, আলিফ, ত্বহা, এই ধরণের নাম রাখা কতটুকু সহিহ?

সমাধানঃ

بسم اللہ الرحمن الرحیم

কোন মানুষের পরিচয়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ও মৌলিক মাধ্যম হচ্ছে তার নাম। এই জন্য ইসলামে নাম রাখার গুরুত্ব অপরিসীম। রসুলুল্লাহ সল্লল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ ব্যাপাৱে উম্মতকে স্পষ্ট দিক নির্দেশনা প্ৰদান করেছেন। ভালো নাম নিশ্চিত করার পাশাপাশি মন্দ ও অসুন্দর নাম রাখা থেকে বাচার জন্য সতর্ক করেছেন। এবং অসুন্দর নাম পরিবর্তন করে ভালো নাম রাখার মাধ্যমে বাস্তব জীবনে এর আমলী নমুনা পেশ করেছেন। হাদীসে এসেছে যে, আল্লাহ তাআলার কাছে সর্বৎকৃষ্ট নাম হলো আব্দুল্লাহ ও আব্দুর রহমান। অন্য হাদীসে এসেছে, তোমরা নবীদের নামে নাম রাখো। অন্য আরেক হাদীসে এসেছে যে, তোমরা আমার নামে নাম রাখো, আমার কুনিয়াতে কুনিয়াত রেখোনা। তবে নবজাতকের যে কোন নাম রাখা জায়েয যদি শরিয়তে এ বিষয়ে কোন নিষেধাজ্ঞা না থাকে। কিন্ত অনন্ত, চিরঞ্জীব, মৃত্যুঞ্জয়, এ ধরনের অর্থবোধক নাম কোন ভাষাতেই রাখা কোন অবস্থাতেই জায়েয নয়। অতএব আরবী হরফ দিয়ে মিম, জিম, হামিম, ইয়াছিন, আলিফ, ত্বহা, এই ধরণের নাম রাখা সহীহ তথা জায়েয আছে। রাখলে কোন সমস্যা নেই। তবে অর্থের দিকে খেয়াল করে সুন্দর অর্থবোধক নাম রাখা উত্তম। কেননা কিয়ামতের দিন এই নাম‌ই মানুষের পরিচয় বহন করবে।

সুত্রসমূহ

الصحيح المسلم: رقم 3975 ان احب اسماءكم الي الله عبد الله و عبد الرحمن

الاداب المفرد: رقم 837

الموسوعة الفقهية الكويتية: 11/3310

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 389 জন।