Darul Ifta, Rahmania Madrasah Sirajganj

ভাষা নির্বাচন করুন বাংলা বাংলা English English
ফাতাওয়া খুঁজুন

Darul Ifta, Rahmania Madrasah Sirajganj, Bangladesh.

নারীদের সাজ-সজ্জা করার জন্য নাক-কান ছিদ্র করা শরীয়ত সম্মত!

ফতওয়া কোডঃ 29-নামা,পোপ-28-10-1442

প্রশ্নঃ

সমাজ এর প্রচলন আছে, নারীদের নাক-কান ছিদ্র করে বিভিন্ন অলংকার লাগানো হয়, সাধারণত ধারালো ছুরি দিয়ে ফোটা করা হয়, এতে প্রকাশ্যে তাদের ওপর জুলুম করা হয় বলে মনে হয়, শরীয়ত এ ব্যাপারে কি বলে?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

নারীদের সাজ-সজ্জা করার জন্য নাক-কান ছিদ্র করা হারাম নয় বরং শরীয়ত সম্মত, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সময় কান ছিদ্র করা হতো, এ কাজ থেকে রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কখনো নিষেধ করেননি, উলামায়ে কেরাম এই কান ছিদ্র করার উপর ইজতেহাদ করে নাক ছিদ্র করাকেও জায়েজ বলেছেন।

সুত্রসমূহ

فتاوى محمودية: 19/371

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 515 জন।

সুস্থ-সবল, সম্পদ সঞ্চয়কারী ফকিরদের দান করা থেকে বিরত থাকা উচিত

ফতওয়া কোডঃ 28-জাস-28-10-1442

প্রশ্নঃ

দান-সদকার ক্ষেত্রে রাস্তার ভিক্ষুক-ফকিরদের অন্য দ্বীনদার ফকিরদের চেয়ে অগ্রাধিকার দেওয়া কেমন?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

দান-সদকা করার সওয়াব এর কাজ, ইখলাসের সাথে দান-সদকা করা অতি জরুরী। তবে সুস্থ-সবল সম্পদ সঞ্চয়কারী ফকিরদের দান করা থেকে বিরত থাকা উচিত এবং দানের ব্যাপারে দ্বিনদার ফকিরদের অগ্রাধিকার দেওয়া উত্তম।

সুত্রসমূহ

سنن ترمذي: 661

الفقه الإسلامي: 3/396

فتاوى فقيه الملت: 5/409

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 430 জন।

আর্থিক সংস্থা-সংগঠন বিলুপ্তি পর বেঁচে যাওয়া টাকার মালিক কে?

ফতওয়া কোডঃ 27-অলে-28-10-1442

প্রশ্নঃ

আমাদের একটি সংস্থা বা সংগঠনের ফান্ড আছে, সংগঠনের কার্যক্রম আপাতত বন্ধ, ফান্ডে কিছু টাকা বেঁচে আছে, এখন এই টাকার হুকুম কি?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

উক্ত সংস্থা বা সংগঠনের ফান্ডে বেঁচে যাওয়া টাকা সমূহের মালিকরা/সদস্যগণ যদি উক্ত টাকার ওপর মালিকানা ছেড়ে দিয়ে থাকেন বা ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বশীলকে খরচের অনুমতি প্রদান করে থাকেন, তাহলে সেটা দান করাসহ যেকোন কাজে খরচ করা বৈধ হবে। অন্যথায় মালিকদের মালিকানা টাকা হিসেবে উক্ত টাকা মালিকদের নির্দেশনা মোতাবেক খরচ করতে হবে।

সুত্রসমূহ

فتاوى محمودية: 6/260

فتاوى فقيه الملت: 12/321

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 464 জন।

বিনা প্রয়োজনে ভ্রু প্লাক করা শরীয়ত সম্মত নয়!

ফতওয়া কোডঃ 26-নামা,বিপ্র-25-10-1442

প্রশ্নঃ

গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনে ভ্রু প্লাক করার শরীয়ত সম্মত বিধান কি?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রচলিত ফ্যাশন অনুযায়ী ভ্রু প্লাক করা শরীয়ত সম্মত নয়, তবে ভ্রু বড় হয়ে গেলে বা এলোমলো হলে স্বাভাবিক করার জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী কাটার অনুমতি আছে, বিনা প্রয়োজনে ভ্রু প্লাক করা জায়েজ নেই।

সুত্রসমূহ

صحيح البخاري: 5939‎‎

رد المحتار: 6/373

فتاوى فقيه الملت: 12/41

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 472 জন।

বিনিময় ছাড়া খতম তারাবীহর ব্যবস্থা না থাকলে, সুরা তারাবিহ পড়া উত্তম!

ফতওয়া কোডঃ 25-সা-13-10-1442

প্রশ্নঃ

যদি সকল মসজিদের সকল খতম তারাবীহর নামাযের ইমাম খতম তারাবীহর বিনিময় গ্রহণ করেন, তাহলে এমন ইমামের পিছনে খতম তারাবীহ পড়বো? না কি করব?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

বিনিময় ছাড়া খতম তারাবীহর ব্যবস্থা না থাকলে, ফরজ নামাজ মসজিদে পড়ে সুরা তারাবিহ পড়া উত্তম।

সুত্রসমূহ

رد المحتار: 6/55

كفاية المفتى: 3/409

فتاوى فقيه الملت: 5/46

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 374 জন।

মসজিদ ছাড়া অন্যত্র খতম তারাবীহর নামায পড়া কেমন?

ফতওয়া কোডঃ 24-সা-13-10-1442

প্রশ্নঃ

মসজিদ ছাড়া অন্যত্র খতম তারাবীহর নামায পড়া, পড়ানো বা এ ধরনের কোনো ব্যবস্থা করা কেমন?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি নিজ মহল্লার মসজিদে খতম তারাবীহর ব্যবস্থা থাকে, তাহলে এই শর্তে অন্যত্র যেকোনো স্থানে খতম তারাবীহর ব্যবস্থা করলে, খতম তারাবিহ পড়লে কোন সমস্যা নেই।

সুত্রসমূহ

رد المحتار: 2/46

احسن الفتاوى: 3/524

فتاوى فقيه الملت: 5/54

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 464 জন।

খতম তারাবিহের নির্ধারিত হাফেজের জন্য মেহমানদারী ও যাতায়াত খরচ দেয়া যাবে

ফতওয়া কোডঃ 23-সা-13-10-1442

প্রশ্নঃ

খতম তারাবীহের জন্য নির্ধারণ করা হাফেজ সাহেবকে এর বিনিময় দেওয়া নাজায়েজ ও হারাম একথা আমাদের জানা আছে, কিন্তু যদি তার জন্য উত্তম খানা, যেমন তারাবির নামাজের পরে দুধ-শরবত ইত্যাদির ব্যবস্থা করা হয়, এবং যাতায়াতের জন্য খরচ বাবদ কিছু টাকা দেয়া হয়, হাফেজ সাহেবের খরচের পরে কিছু টাকা বেঁচেও যায়, তাহলে খরচের টাকা হাফেজ সাহেবের গ্রহণ করা বৈধ কিনা? বেঁচে যাওয়া টাকার হুকুম কি?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

মেহমান হিসেবে যাতায়াত খরচ ও উত্তম খাবারের ব্যবস্থা করা জায়েজ আছে, তবে খরচের পর যদি টাকা বেঁচে যায় সে টাকা ফেরত দেওয়াই উত্তম।

সুত্রসমূহ

فتاوي دار العلوم: 4/295

فتاوى فقيه الملت: 5/71

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 524 জন।

জুমুআর খুতবা চলাকালিন কালেকশন নিষিদ্ধ

ফতওয়া কোডঃ 22-জুই-13-10-1442

প্রশ্নঃ

আমাদের মসজিদে একটা নিয়ম আছে, সেটা হল জুমুআর নামাজে খুতবার পূর্বে ইমাম সাহেব মসজিদের কালেকশন এর জন্য ঘোষণা করলে প্রত্যেক কাতার থেকে একজন করে ব্যক্তি উঠে কালেকশন করেন, প্রশ্ন হল কালেকশন পুরোপুরি শেষ না হতেই মুয়াজ্জিন সাহেব খুতবার আযান দেন, এবং এরপর খুতবা শুরু হয়, এদিকে যারা কালেকশন করছেন তারা মুআজ্জিন সাহেবের খুতবার আজান চলাকালীনও কালেকশন করতে থাকেন, কখনো কখনো কালেকশন চলতে চলতে খুতবাও শুরু হয়ে যায়, আমার জানার বিষয় হল খুতবা চলাকালীন বা খুতবার আজান শুরু হওয়ার পর এরকম দান বক্স চালানো বা কালেকশন করার শরীয়ত বৈধতা দেয় কিনা? যদি কালেকশন করা অবৈধ হয়, তাহলে এমন অবৈধ কাজ পরিচালনা করা বা এর সাথে সম্পৃক্ত থাকা কতটুকু বৈধ?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

যেহেতু জুমুআর দ্বিতীয় আযান খুতবার অংশ, তাই আজান শুরু হওয়ার পর থেকে উভয় খুতবা শেষ হওয়া পর্যন্ত কালেকশন করা, দান বক্স চালানো, এগুলো পরিচালনা করা ইসলামী শরীয়তের দৃষ্টিতে অবৈধ ও নিষিদ্ধ, আর এমন অবৈধ ও নিষিদ্ধ কাজের সাথে জড়িত থাকা বা এ কাজে সহযোগিতা করা সম্পূর্ণ নাজায়েজ।

সুত্রসমূহ

الدر المختار: 1/399, 6/360

رد المحتار: 2/185

فتاوى محمودية: 2/342

الهداية: 1/231-232

فتاوي دار العلوم: 5/121

فتاوى فقيه الملت: 4/386-867, 4/401

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 521 জন।

সুদি ঋণগ্রহীতাকে ঋণ গ্রহনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করা নাজায়েয

ফতওয়া কোডঃ 21-সুই-30-09-1442

প্রশ্নঃ

আমার একটি কনসালটেন্সি ফার্ম আছে। যার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস প্রদান করে থাকি। তন্মধ্যে থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ESF এর মাধ্যমে ২% সুদে কৃষি ভিত্তিক শিল্পখাতে নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি করে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করে দেশের শিক্ষিত, বেকার, কর্মক্ষম যুবক শ্রেনীকে লোন প্রদান করা হয়। এই লোন পেতে উদ্যোক্তারা  সাধারণ কনসালটেন্সি ফার্মের মাধ্যমে আবেদন বা কাজ করে থাকে। ইতোমধ্যে অনেক উদ্দোক্তা আমার সাথে যোগাযোগ করেছেন। এখন মুহতারামের নিকট আমার জানার বিষয় হলো। এই লোন প্রসেসিংয়ের মাধ্যমে উদ্দোক্তাদের সহায়তা করা আমার জন্য শরীয়তের দৃষ্টিতে বৈধ হবে কি? অনুগ্রহ পূর্বক কুরআন-হাদীসের দলীলের আলোকে উত্তর প্রদান করলে কৃতজ্ঞ থাকবো।

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

আপনার বর্ননা অনুযায়ী লোন প্রসেসিংয়ের মাধ্যমে উদ্দোক্তাদের সহায়তা করা আপনার জন্য শরীয়তের দৃষ্টিতে বৈধ নয়, কেননা আপনি সরাসরি সুদী কারবারের সাথে সম্প্রিক্ত না হলেও ব্যাংক থেকে সুদি ঋণগ্রহীতাকে ঋণ গ্রহনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করছেন, যা সম্পূর্ন অবৈধ ও গুনাহের কাজ, শরিয়ত এমন কাজকে সমর্থন কর না। পূর্বে এমন কাজ করে থাকলে তওবা করতে হবে, মাসআলা জানার পর আগামিতে এমন কাজ করা জায়েয হবে না।

সুত্রসমূহ

سورة المائدة: 2

صحيح المسلم: 11/25 (1598)

فتاوى فقيه الملت: 10/145-147

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 417 জন।

রোজা রেখে গোশতে যদি খাদ্য জাতিয় কোন ইঞ্জেক্শন নেওয়া হয়, তাহলে রোজা নষ্ট হবে না!

ফতওয়া কোডঃ 16-স-23-08-1442

প্রশ্নঃ

রোজা রেখে গোশতে যদি খাদ্য জাতিয় কোন ইঞ্জেক্শন নেওয়া হয়, তাহলে কি রোজা ভেঙ্গে যাবে?

সমাধানঃ

بسم الله الرحمن الرحيم

রোজা রেখে গোশতে যদি খাদ্য জাতিয় কোন ইঞ্জেক্শন নেওয়া হয়, তাহলে রোজা ভাঙ্গবে না, তবে অতি বিনা প্রয়োজনে এমন ইঞ্জেক্শন নিলে রোজা মাকরুহ হবে।

সূত্রসমূহ

فتاوى رحيمية: 2/38

فتح القدير: 2/257

فتاوى فقيه الملت: 5/442-443

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 409 জন।