Darul Ifta, Rahmania Madrasah Sirajganj

ভাষা নির্বাচন করুন বাংলা বাংলা English English
ফাতাওয়া খুঁজুন

কওমী আলেমরা তাদের উস্তাদদেরকে আকাবির বলছেন, এটা কি ঠিক?

ফতওয়া কোডঃ 172-আআ-09-02-1444

প্রশ্নঃ

এক আলেম প্রশ্ন করেছেন “কওমী আলেমরা তাদের উস্তাদদেরকে আকাবির বলছেন। আরবিতে আকাবির শব্দটি আকবার শব্দের বহুবচন। আকবার শব্দের অর্থ হলো সবচেয়ে বড়। যা শুধুমাত্র মহান আল্লাহর ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যায়। আকাবির শব্দটি যেখানে কোন নবী, রাসুল এবং সাহাবিদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হলো না সেখানে কওমি আলেমরা তাদের উস্তাদদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করছেন কেন?” আমি এই প্রশ্নের উত্তর জানতে চাই!

সমাধানঃ

بسم اللہ الرحمن الرحیم

মূলত اكبر শব্দটি الكبر থেকে اسم تفضيل এর সীগা (শব্দ)। যা আধিক্যতা বোঝায়। আর এই শব্দটি আল্লাহ তাআলার সত্ত্বাগত নাম বা গুন বাচক নাম হিসেবে গন্য করা হয়না। শরীয়ত কৰ্তৃক যে ধরনের নাম বা গুনবাচক শব্দ বান্দাদের জন্য রাখা নিষেধ অথবা একমাত্ৰ আল্লাহ তাআলার জন্য বিশেষিত হিসাবে গন্য করা হয়, যা বান্দাদের জন্য রাখা নিষেধ তার অন্তৰ্ভুক্তও নয়।

اكبر শব্দটি যেমন মহান আল্লাহ তাআলার ক্ষেত্ৰে ব্যবহার হয়, তদ্রুপ অন্য ক্ষেত্ৰেও ব্যবহার হয়ে থাকে। যেমন বুখারী শরীফের এক হাদীসে রসুলুল্লাহ সল্লল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেনঃ الا اخبركم باكبر الكباءر,قالوا بلي يا رسول الله. উক্ত হাদীসে রসুলুল্লাহ সল্লল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম اكبر শব্দটি গুনাহ এর একটি প্ৰকার বুঝানোর জন্য ব্যবহার করেছেন। অনুরুপ ভাবে একটি মাসনুন দুআতে বৰ্নিত আছেঃ اللهم لا تجعل الدنيا اكبر همنا উক্ত দুআতে اكبر শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে هم. শব্দ এর সিফাত (গুণ) হিসাবে। তেমনি ভাবে ফিকহের কিতাবাদিতে হদস এৱ ক্ষেত্ৰেও اكبر শব্দটি ব্যবহার হয়ে থাকে যেমন حدث اكبر (বড় নাপাক)।

সুতরাং اكبر শব্দটি শুধুমাত্ৰ মহান আল্লাহ তাআলার জন্য খাস নয়, অন্য ক্ষেত্ৰেও ব্যবহার করা যাবে। আর اكبر শব্দের বহুবচন হলো আকাবির। সুতরাং বড় বড় আলেমদের ক্ষেত্ৰে তাদের মান-মৰ্যদা ও গুরুত্ব বুঝানোর জন্য আকাবির বলা কোন দোষনীয় কাজ নয়।

উল্লেখ্য যে, নবী-রসুলদের মর্যাদা অনেক উপরের হওয়ায় তাদের শানে আকাবির শব্দ ব্যবহারে প্রয়োজন নেই, তবে সাহাবায়ে কিরামগনের সম্মানে আকাবির শব্দের ব্যবহার কিতাবে উল্লেখ রয়েছে।

সুত্রসমূহ

صحيح البخاري: 6273 قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : ألا أخبركم بأكبر الكبائر . قالوا : بلى يا رسول الله ، قال الإشراك بالله ، وعقوق الوالدين ، وكان متكئا فجلس

السنن الترمذي: 3502 اللهمَّ اقسِمْ لنا مِنْ خشيَتِكَ ما تحولُ بِهِ بينَنَا وبينَ معاصيكَ ، ومِنْ طاعَتِكَ ما تُبَلِّغُنَا بِهِ جنتَكَ ، ومِنَ اليقينِ ما تُهَوِّنُ بِهِ علَيْنَا مصائِبَ الدُّنيا ، اللهمَّ متِّعْنَا بأسماعِنا ، وأبصارِنا ، وقوَّتِنا ما أحْيَيْتَنا ، واجعلْهُ الوارِثَ مِنَّا ، واجعَلْ ثَأْرَنا عَلَى مَنْ ظلَمَنا ، وانصرْنا عَلَى مَنْ عادَانا ، ولا تَجْعَلِ مُصِيبَتَنا في دينِنِا ، ولَا تَجْعَلْ الدنيا أكبرَ هَمِّنَا ، ولَا مَبْلَغَ عِلْمِنا ولَا تُسَلِّطْ عَلَيْنا مَنْ لَا يرْحَمُنا

فتاویٰ شامی: 5/532 قال فی الدر ویستحب الترضی للصحابة والترحم للتابعین و من بعدہم من العلماء ․․․․․․․وکذا یجوز عکسہ

الهداية: مكمل

والله اعلم بالصواب

দারুল ইফতা, রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশ।

আপনিসহ এই ফতওয়াটি পড়েছেন মোট 100 জন।